নিজেকে সফল হিসাবে দেখতে করনীয় ১০টি কাজ

চলার পথে ভাল-মন্দ, হাসি-কান্না, সুখ-দুঃখ পাশাপাশি থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তবু সমস্ত প্রতিকূলতা পেছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যাবার নামই হচ্ছে জীবন। নিজেকে সাফল্যের শিখড়ে নিয়ে যেতে সুঅভ্যাস চর্চার সাথে সাথে অহংকার, অযুহাত, হিংসা ইত্যাদি নেতিবাচক দোষ গুলো পরিহার করা জরুরী। আসুন জেনে নেই নিজেকে সফল করতে সহায়ক এমন ১০টি করনীয় কাজ সম্পর্কে।

get-up-early

১। ঘুম – “Early to bed and early to rise” এই বিখ্যাত উক্তির সাথে আমরা সবাই পরিচিত কিন্তু যান্ত্রিক জীবনের বাস্তবতায় আমাদের জীবনযাত্রায় এসেছে ভিন্নতা ফলে ঘুমের সময়েরও এসেছে পরিবর্তন । একদিন আপনার বর্তমান সময়ের চেয়ে একঘন্টা আগে ঘুম থেকে উঠে দেখুন জীবনকে উপভোগ করার জন্য পেয়ে যাবেন অফুরন্ত সময়!

lifes-goal

২। লক্ষ্য – লক্ষ্য ছাড়া কোন কাজ সাফল্য লাভ করতে পারে না। নিজের লক্ষ্য সম্পর্কে নিজের কাছে নিজেকে ব্যাখ্যা করুন, সুস্পষ্ট ধারনা দিন। পরিকল্পনা অনুযায়ী আজকে আপনার কর্মপন্থা ঠিক করে সামনে এগিয়ে যান।

breakfast

৩। ব্রেকফাস্ট– কোন অবস্থাতেই সকালের নাস্তা না করার অযুহাত তৈরী করবেন না। সকালের নাস্তা সারাদিন আপনার মন সতেজ এবং এনার্জি ধরে রাখতে সাহায্য করবে। তাই আপনার দিনটি কে অর্থবহ করে তুলতে শুরুটা হোক নাস্তার টেবিল থেকেই।

daily-routine

৪। রুটিন – কাজ ফেলে রাখা মোটেও বুদ্ধিমানের কাজ নয়, নিজের করনীয় প্রতিদিনের কাজ সম্পর্কে লিস্ট বানিয়ে ফেলুন। লিস্ট অনুযায়ী কাজ সম্পন্ন করুন আপনাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হবে না।

motivate-yourself

৫। নিজেকে মোটিভেট করুন– অযুহাত ও অলসতা আপনাকে পেছনে টেনে রাখার জন্য যথেষ্ট তাই নিজের লক্ষ্যে অবিচল থাকুন। নিজের মনকে প্রফুল্ল রাখতে আড্ডা দিন, ছবি দেখুন, মজা করুন। কোন কাজে আশানরুপ ফল না আসলে হতাস হবেন না, রিলাক্স করুন। নিজেকে ইতিবাচক করে তোলার জন্য সফল ব্যক্তিদের জীবনী পড়ুন।

exercise

৬। শরীরচর্চা – ঘুম থেকে উঠেই কাজ শুরু করা মোটেও ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নয়। শরীরকে সক্রিয় রাখতে নিজের রুটিনে হালকা ব্যয়াম যুক্ত করে নিন। এতে আপনার পেশীর শিথিলতা ও রক্ত সঞ্চালন বাড়ার কারণে আপনি আরো কর্মক্ষম হয়ে উঠবেন ।

food-habits

৭। খাদ্যাভাস – বাইরের খাবার সম্পূর্ন ত্যাগ করুন, প্রয়োজনে বাসা থেকে খাবার কর্মস্থলে নিয়ে যান। কারণ সাফল্যের জন্য সুস্থ থাকা জরুরী।

well-decorated-office

৮। অপ্রয়োজনীয় জিনিস বাদ দিন – নিজের ঘর কিংবা অফিসের ডেস্কে অগোছালো কাগজ বা জিনিস ছড়িয়ে রাখবেন না। অপ্রয়োজনীয় জিনিস ফেলে দিন, চারপাশ পরিছন্ন রাখুন। অগোছালো ঘর আপনার কর্মস্পীহা কমিয়ে দেবে।

go-to-sleep-early

৯। রাত জাগবেন না– নিজেকে পরবর্তি দিনের জন্য প্রস্তুত রাখতে ও শরীর সুস্থ রাখার জন্য ঘুম অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। অযথা রাত জাগার অভ্যাস পরিহার করুন, আর সময়ের কাজ সময়ে করতে পারার অভ্যাসই আপনাকে রাত জেগে কাজ করা থেকে বিরত রাখবে।

dont-talk-without-work

১০। কথা কম বলুন– কথা কম বলুন এতে কাজের প্রতি মনসংযোগ বাড়বে। নিজের সাথে কথা বলুন তাহলে আপনার কাজের মান বাড়বে। অযথা কারো সাথে কথা বলে সময় নষ্ট করা আপনাকে লক্ষ্য থেকে পিছিয়ে দেবে।

নিজের মধ্যে ইতিবাচক গুনের চর্চা বাড়িয়ে দিন, সাফল্য আপনার কাছে ধরা দেবেই।

নিজের লক্ষ্য অবিচল রাখতে প্রেরণা সৃষ্টিকারী নিচের ভিডিওটি দেখে নিতে পারেনঃ

Leave a Comment