যে কারণগুলোর জন্য আপনি এখনো সঙ্গীবিহীন

মাসের পর মাস চলে যায় কিন্তু আপনি মন মতো একজন সঙ্গী পান না। অথচ প্রতিনিয়ত বন্ধুদের অবলীলায় প্রেমিক বা প্রেমিকার সঙ্গে হাশিখুশি সময় কাটাতে দেখেন। কিংবা আপনি প্রেম করতে গিয়েও ব্যর্থ হয়েছেন। তবে মিলিয়ে নিন, ঠিক কী কী কারণে এখনও আপনি একা।

বছর কেটে যায় অথচ একাকীত্ব ভাগ করে নেওয়ার মতো কাউকে পাননি! এক গবেষণার ফল বলছে দোষটা কিন্তু সম্পূর্ণ আপনারই। নিম্নলিখিত কারণগুলোর জন্যই এখনও ‘একা’ থেকে ‘দোকা’ হতে পারেননি আপনি।

১। আপনি আসলে রূপকথার বা গল্পের নায়কের মতো কোনও চরিত্রের অপেক্ষায় রয়েছেন যে কখনই আসবে না। বাস্তবটা মেনে নিলে দেখবেন, সঙ্গী বা সঙ্গিনীর দেখা পাওয়াটা অনেক সহজ হয়ে গিয়েছে। শুধু মাথায় রাখুন, পৃথিবীতে সর্বগুণসম্পন্ন নিখুঁত মানুষ এখনও জন্মায়নি। মানিয়ে চলাটাই জীবন।

২। আপনি অন্তরঙ্গতা বা ঘনিষ্ঠতা নিয়ে দ্বিধায় থাকেন সর্বক্ষণ। নতুন কারোর সঙ্গে আলাপ হলে কতটা ঘনিষ্ঠ হওয়া বা দুরত্ব রাখা উচিৎ সেই হিসেব করতে পারেন না। সদ্য পরিচিত মানুষটি কী মনে করবে এইসব ভাবতে শুরু করেন এবং সে দিকে এগোনই না যার জন্য শুরুর আগেই শেষ হয়ে যায় সম্পর্ক। তার চেয়ে বরং খুব ঘনিষ্ঠ না হলেও নিজেকে খোলামেলা রাখার চেষ্টা করুন।

৩। আপনার মনে কোনভাবে এই ধারণা বসে গিয়েছে একা থাকার মধ্যে আলাদা সুখ রয়েছে। অথচ নিজের অজান্তেই কখনও কখনও আবার একাকীত্ব অনুভব করেন। প্রেমে ব্যর্থতা থাকেই। তবে একবার ব্যর্থ বলে বারবার হবেন এমন ভাবার কোনও কারণ নেই। কাজেই, এই ধারণা মন থেকে বার না করলে সঙ্গী বা সঙ্গিনী পাবেন না।

৪। কাজপাগল মানুষ আপনি। জীবনের সবটুকু জুড়েই নিজের অফিস, ব্যবসা কিংবা অন্য কোনও কাজকে প্রাধান্য দেন। ফলে আপনাকে যাঁর ভাল লাগে সে কিছু বলবে না এই ভেবে যে, তাঁর জন্য আপনার সময় নেই। কাজকে প্রাধান্য দেওয়া অবশ্যই উচিৎ তবে প্রয়োজনের বেশি নয়।

৫। যদি আপনি প্রচুর পরিমাণে মদ্যপান বা ধূমপান করে থাকেন তবে তার জন্যেও আপনি সিঙ্গল হতে পারেন। অনুষ্ঠানে বা মাঝেমধ্যে খেলে ক্ষতি নেই তবে কারোর মনে আপনার ছবি যদি নেশাগ্রস্থ হিসেবেই থেকে যায় সেটা মোটেই ভাল হবে না।

৬। কিংবা আপনি অহংকারী। আপনার দম্ভ আপনার আচরণে ফুটে উঠে। নিজেকে সবার থেকে আলাদা ভাবার কারণ নেই। নিজেকে মেলে ধরুন এতে আপনাকে আবিষ্কারের জন্য অন্যের পক্ষে সহজ হবে।

৭। আপনি নিজেকে অযোগ্য ভাবেন তবে আপনার মন মতো সঙ্গী পাওয়া সত্যিই কষ্টকর হবে। হীনমন্যতা আপনাকে অন্তর্মুখী করবে।

৮। আত্মবিশ্বাসের অভাব রয়েছে মনে হয় আপনার মধ্যে। যে কারনে আপনি ভাবছেন যদি আপনি প্রত্যাক্ষীত হন তবে আপনি বিষয়টি সহজ ভাবে মেনে নিতে পারবেন না।

Leave a Comment