প্রতিটি দিন বাঁচুন আনন্দে বর্তমানকে উপভোগ করে

আমাদের মগজ সব সময় আমাদের চিন্তাকে জাগ্রত রাখে। কখনো বর্তমানকে নিয়ে চিন্তায় থাকি, কখনোবা ভবিষ্যৎ নিয়ে। এই চিন্তা যে সব সময় নেতিবাচক তাও কিন্তু নয়। তবে এই চিন্তায় চিন্তায় আমরা বর্তমানের আনন্দময় সময়টাকেও ভাবনার অতল সাগরে ভাসিয়ে দিচ্ছি। এই যেমন আপনি আপনার বন্ধুর জন্মদিনের আয়োজনে গেলেন, সেখানে সবাই অনেক আনন্দ করলেও আপনি হয়তো ভাবছেন আপনার মা ঠিকমতো ঔষধ খেয়েছে কিনা কিংবা অফিসের কাজে আপনাকে বাইরে যেতে হবে তখন পরিবারের দেখভাল কেমন করে হবে ইত্যাদি ইত্যাদি। এমনটা শুধু আপনি নন, আমরা সবাই কমবেশি এরকম। আমরা যে যেখানে থাকি না কেন সেই সময়টাকে আমরা উপভোগ করতে পারি না। আমরা নানারকম চিন্তায় আচ্ছন্ন হই, ভাবনার সুতোয় এক এক করে ভাবতে থাকি অতীত, বর্তমান, ভবিষ্যৎ। আর এসব করতে গিয়ে আমরা এমন মুহুর্ত গুলোকে আমাদের থেকে হারিয়ে ফেলছি যেগুলো হতে পারতো সারা জীবন মনে রাখার মতো।

বর্তমানকে কাজে লাগানো বা Living in moment এটি সম্পূর্নই একটি অনুশীলনের বিষয়। রুটিন জীবন-যাপন কিংবা কাজ হাতে ফেলে না রাখলেই আনন্দে বাঁচতে পারেন সহজে। প্রতিটি দিন বাঁচুন আনন্দে বর্তমানকে উপভোগ করে।

সুন্দর ভবিষ্যতের জন্যই বর্তমানকে উপভোগ করুনঃ
আপনি যদি একটি সাজানো ভবিষ্যত চান তাহলে আপনার বর্তমানকে আগে সাজাতেই হবে। বর্তমান থেকেই ভবিষ্যতের ভীত রচিত হয়। অতীতের ব্যর্থতার কথা ভেবে বর্তমানের কাজকে হেলায় ফেলে রাখা বা বিলম্বিত করা ভবিষ্যতে আপনাকে পেছনের দিকে টেনে ধরবে। সুতরাং বর্তমানকে, কাজকে, নিজেকে উপভোগ করুন।

মনোযোগ ফিরিয়ে আনুনঃ
যখনই মনে হচ্ছে আপনি বর্তমান থেকে হারিয়ে ভাবনায় ডুবে যাচ্ছেন তখনি সচেতনভাবে বর্তমানের কাজে নিজেকে ফিরিয়ে আনুন। কাজের চাপ, ট্রেস এই সমস্যাগুলো জীবনে থাকবেই আর যখনি আপনি বর্তমানের কাজ থেকে হারিয়ে যাচ্ছেন বলে মনে হবে তখনি একশ থেকে এক পর্যন্ত উলটা গুনে দেখতে পারেন। এটা অনেক প্রাচীনও কার্যকরী পদ্ধতি। কিছুক্ষণ পর খেয়াল করুন সকল দুশ্চিন্তা থেকে এই সময়টা দূরে ছিলেন আপনি!

ক্যারিয়ারের চিন্তা এড়াতে বর্তমানে ফোকাস করুনঃ
ক্যারিয়ার নিয়েও সবাই কম বেশি ভাবনায় থাকে আবার এমন মানুষ অনেক আছেন যারা সারাক্ষণ দুশ্চিন্তায় থাকেন। কিংবা কবে যেন অসুস্থ্য হয়ে পড়েন সেই সময়ের জন্য টাকা জমানো দরকার। অথবা বৃদ্ধ বয়সে যদি দেখার কেউ না থাকে তাহলে তখন কি হবে! আজ থেকেই সেই সময়ের সব খরচ গোছাতে শুরু করেন অনেকে। আরে ভাই কতদিন বাঁচবো এটা কে জানে? কথায় আছে – আগামীকাল কে দেখেছে? বর্তমানে প্রতিজ্ঞ হোন, সব সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

পারফর্মেন্স ভাল করার জন্য সেটার কথা ভাবা বন্ধ করুনঃ
আপনাকে মঞ্চে ডাকা হলো সবার উদ্দ্যেশে কিছু বলার জন্য কিন্তু আপনি যদি ভাবতে থাকেন এখন আমি মঞ্চে গিয়ে কি বলবো, আমাকে কি না ডাকলেই হতো না! তবে এখনি এসব ভাবনা বন্ধ করে দিন কারণ মঞ্চে গিয়ে আপনার মুখ বন্ধ হয়ে যাবার জন্য এই নেতিবাচক চিন্তাই যথেষ্ট। সুতরাং ঠান্ডা মাথায় সময়কে মোকাবেলা করুন।

সবসময় নতুনকে লক্ষ্য করুনঃ
প্রায়শই আমাদের এমন হয় একটা বই পড়ছি তখন হঠাৎ খেয়াল করলাম আগের পৃষ্ঠায় কি লেখা ছিল মনে করতে পারছি না। একই রাস্তায় আগে গেছি কিন্তু ফেরার পথে আর এক্সিট পয়েন্ট মনে করতে পারছি না। মনোবিজ্ঞানের ভাষায় একে Mindlessness বলা হয়। এই সমস্যা কাটানোর সহজ উপায় হল যে কোন নতুন জিনিস খেয়াল করুন অর্থাৎ নতুন জিনিসকে ক্লু বা তথ্য হিসেবে কাজে লাগান। যেমন বইয়ের আগের পৃষ্টার নতুন কোন শব্দ বা ইউনিক কোন কিছু মাথায় ঢুকিয়ে নিন। এই চর্চা আপনাকে বর্তমানে থাকতে সাহায্য করবে।

হাল না ছেড়ে মোকাবেলা করুনঃ
আমরা জীবনে চলার পথে সমস্ত সমস্যাগুলো মোকাবেলা করি না, অনেক সময় সমস্যার সমাধান করে এড়িয়ে যাই। পরবর্তীতে এই সমস্যাই আমাদের সামনে আবার ফিরে আসে আরো কঠিন হয়ে। সমস্যা যতই কঠিন হোক সকল সমস্যার সমাধান আছেই। সাহসের সাথে মোকাবেলা করুন, আপনাকে আর কে আটকায়!

Leave a Comment